শনিবার, মে ২৫, ২০২৪

আত্রাই নারী লোভী তপন,পরিমলকে নারী দিয়ে ফাঁসালো ব্ল্যাকমেইলার রাজু গ্রুপের সদস্যরা

আপডেট:

নওগাঁ জেলার আত্রাই উপজেলা নৈদিঘী গ্রামে এ ঘটনাটি ঘটেছে গত (২১ জুন ২০২৩) বুধবার রাত্রি ১০ ঘটিকায় ব্ল্যাকমেইলার রাজু’র নিজ বসত বাড়ীতে। বিষয়টি নিয়ে এলাকায় বেশ চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে।ভুক্তভোগী অর্থাৎ নারী লোভী মারিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষক তপন কুমার ও পরিমল নিজেদের রক্ষা করতে নিকটস্থ থানার দারস্থ হয়েছেন এবং থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

অভিযোগ সূত্রে জানাযায়, শ্রী পরিমল প্রামানিক (৪৫), পিতা-মৃত সুধীর প্রামানিক, সাং-সগুনা, থানা-আত্রাই, জেলা-নওগাঁ থানায় হাজির হইয়া বিবাদী ১। মোঃ রাজু (৩৫), পিতা-মৃত নজরুল ইসলান, ২০ মোঃ তুসার মন্ডল (৪২), পিতা-মৃত কায়েম উদ্দিন মণ্ডল, ৩। মোঃ আলমগীর হোসেন (৪৫), পিতা-মৃত সাদিয়ার রহমান, ৪। মোঃ নিজাম উদ্দিন (৪০), পিতা-মৃত হবিবর রহমান, সর্ব সাং-নৈদিঘী, থানা-আত্রাই, জেলা-নওগাঁদের বিরুদ্ধে এই মর্মে অভিযোগ দায়ের করিতেছি যে, আমি ও শ্রী তপন কুমার (৫৫) দ্বয় ইং ২১।০৬।২০২৩ তারিখ রাত্রি অনুমান ০৭.০০ ঘটিকার সময় নওদুলী বাজারস্থ জনৈক শ্রী স্বপন চন্দ্র চক্রবর্তীর দোকানে বসে চা খাচ্ছিলাম।

বিজ্ঞাপন

ঐ সময় উপরোক্ত ১নং বিবাদী আমাদের পিকনিক খাওয়ার কথা বলিয়া ১নং বিবাদী তাহার বাড়িতে লইয়া যায়। একই রাত্রি অনুমান ১০:০০ ঘটিকার সময় খাওয়া দাওয়া শেষ করতে উপরোক্ত ২,৩ ও ৪নং বিবাদীগণ অজ্ঞাতনামা একজন মহিলাসহ ১নং বিবাদীর বসত বাড়িতে আসে। এক পর্যায়ে উপরোক্ত সকল বিবাদীগণ আমাকে ও শ্রী তপন কুমার বিশ্বাসকে ১নং বিবাদীর বসত ঘরে ভেতর জোর পূর্বক ধাক্কা দিয়ে ঢুকিয়ে দেয় এবং অজ্ঞাতনামা মহিলাকে ঐ রুমে ভিতরে ঢুকিয়ে দিয়ে সকল বিবাদীগণ হাতে ধারালো হাসুয়া, লোহার রড সহ দেশীয় তৈরি বিভিন্ন অস্ত্রে সস্ত্রে সজ্জিত হইয়া অজ্ঞাতনামা মহিলাকে দ্বারা আমাদের মানহানী করাসহ অসৎ উদ্দেশ্যে হাসিলে লক্ষ্যে অজ্ঞাতনামা মহিলাকে উলঙ্গ করিয়া প্রথমে শ্রী তপন কুমার বিশ্বাসের শরীরের ওপরে ফেলিয়া দিয়ে অশ্লীল ছবি মোবাইল ফোনে ধারণ করে এবং পর্যায়ক্রমে উপরোক্ত বিবাদীগণ আমার মানহানী করাসহ অসৎ উদ্দেশ্য হাসিল করার জন্য অজ্ঞাতনামা মহিলাকে উলঙ্গ করিয়া আমার শরীরের ওপরে ফেলিয়া দিয়ে অশ্লীল ছবি মোবাইল ফোনে ধারণ করে এবং আমার নিকট হইতে ১,০০,০০০/- (এক লক্ষ) টাকা চাঁদা দাবী করে।

তখন আমি তাহাদের উক্ত টাকা দিতে রাজী না হইলে উপরোক্ত বিবাদীগণ জোর পূর্বক ভাবে তিনটি ১০০ টাকা মূল্যের ননজুডিসিয়াল স্ট্যাম্পে আমার স্বাক্ষরসহ টিপসহি করিয়া নেয় এবং উপরোক্ত বিবাদীগণ আমাদেরকে বিভিন্ন প্রকার ভয়ভীতি দেখায় এবং বলে উক্ত ঘটনার বিষয়টি যদি আমরা কাউকে বলি তাহলে উপরোক্ত বিবাদীগণ আমাদেরকে হত্যা করিয়া লাশ গুম করিয়া দিবে।

বিজ্ঞাপন

পরে আমরা উপরোক্ত বিবাদীদের হাত থেকে কোন রকম রক্ষা পেয়ে প্রাণ ভয়ে বাড়িতে চলিয়া আসি। পরবর্তীতে উক্ত ঘটনার বিষয়টি সাক্ষী ১। শ্রী সুবীর চন্দ্র প্রামানিক (৫২), পিতা-মৃত সুধীর প্রামানিক, সাং-সগুনা, ২। মোঃ সাখাওয়াত হোসেন (৩৫), পিতা-মোঃ আঃ মোতালেব হোসেন, ৩। মোঃ আঃ ওয়ারেছ প্রামানিক (৫০), পিতা-মৃত রহিম উদ্দিন প্রামানিক, উভয় সাং-নৈদীঘি, থানা-আত্রাই, জেলা-নওগাঁগণসহ আরো অনেকে জানেন ও শুনিয়াছেন।

এ বিষয়ে জানার জন্য ব্ল্যাকমেইলার রাজু’র মুঠোফোনে কল দেওয়া হলে সে সাংবাদিক পরিচয় পাওয়ার পর বলেন আমাদের এ বিষয় সমাধান হয়েছে।সেই সাথে ব্যস্ততা দেখিয়ে অপর প্রান্ত থেকে দ্রুত সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয়।

বিষয়টি নিয়ে আত্রাই থানার অফিসার্স ইনচার্জ তারেকুল সরকারের সাথে মুঠোফোনে কথা বলা হলে উনি বলেন, আমরা অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।বিষয়টি সমাধান হয়েছে কিনা এ বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন,আমরা লিখিত অভিযোগ পেয়েছি সেটির সূত্র ধরে কাজ করছি।আমরা উনাদের দুই পক্ষের কারো কাছ থেকে এখনো সমাধানের কোন লিখিত কাগজ পায়নি।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:

সর্বাধিক পঠিত