রবিবার, মে ১৯, ২০২৪

আমেরিকার কি সত্যি ই সরকার পরিবর্তন চায

আপডেট:

 

লেখক ঃ ইঞ্জিঃ মোঃ সিরাজুল ইসলাম।

বিজ্ঞাপন

তাং ঃ ৩১.০৮.২০২৩

 

বিজ্ঞাপন

বর্তমান হাসিনা সরকার দেশের উন্নয়ন কি করেছেন সে ফিরিস্তি অনেকে দেন! আমি শুধু বলবো আমেরিকার ঘাম ছুটিয়ে দিয়েছেন এটা বিরাট ব্যাপার! আগের দিন থাকলে সপ্তম নৌবহর দেখা যেতো বঙ্গোপসাগরে, এখন অবশ্য সে সাহস পান না বাইডেন স্যার! চীন রাশিয়া চিপায় ফেলে সপ্তম নৌবহর ডুবাবে সাগরে তা বোঝেন! পাকিস্তানের ইমরান, পদ্ধতি ও কাজে খাটাতে পারছে না, মুজিব কে, চিলির আলেন্দের পদ্ধতি এখন মোস্তাকের মত বেঈমান খুঁজে পাওয়া মুস্কিল হচ্ছে কারন মোস্তাকের সামরিক লবিং ছিলো তার নিজ ভাগ্নে মেজর ফারুক, সে মার্কিন রাস্ট্র দূতের সাথে দেখা করেছে বার বার!

 

তাই ছয় মাসে শত চাপ তাপ, শত কুটনৈতিক পাঠান বাংলাদেশে! বাংলাদেশ নামক ক্ষুদ্র দেশটা বিশ্বে ভিষণ মূল্যবান এখন ভু-রাজনৈতিক দৃষ্টিতে। তিন পরাশক্তির চাপে বাংলাদেশ! আমেরিকা চীন রাশিয়া, তবে আমেরিকার কাছে হীরার চেয়ে দামী তাদের ভাষায় এই তলাবিহীন ঝুড়িটা! কিন্ত শেখের বেটি শেখের মত ত্যাড়া, কোন মতে মার্কিন ডাকে দেন না সাড়া! ২৫ বিলিয়ন বিনিয়োগ সমুদ্র তলদেশে তেল-গ্যাস অনুসন্ধানে, পায়রায় বিনিয়োগ অনেক বিলিয়ন! এটা মার্কিন জীবনে প্রথম গাইটের পয়সা এদেশের জন্য খোলা। চাপ বাড়াচ্ছেন একের পর এক, এত চাপ তুরস্কের এরদোয়ান কে পরিবর্তনে দেন নাই, চেষ্টার ও ত্রুটি করেন নাই, আবার ক্ষমতায় এলে ১২ বিলিয়ন লোন আইএমএফ কে দিয়ে, হাতে থাকুক নীতি!

 

বাংলাদেশে এখন সফরে আছেন, “মার্কিন নীতি গবেষণা প্রতিষ্ঠান উইলসন সেন্টার ” এর দক্ষিণ এশিয়া বিষক পরিচালক “মিঃ কগেলম্যান” (এমন প্রতিষ্ঠানের নাম ৪৪ বছর লেখালেখি জীবনে শুনি নাই!)

তিনি সাংবাদিকদের তোপের মুখে বলেছেন,

১. বাংলাদেশ সবচেয়ে এ-ই সময় কঠিন তিন শক্তিশালী দেশের স্বার্থের চাপে আছে।

২. কেন বাংলাদেশে উপর এত মার্কিন চাপ,এমন প্রশ্নের উত্তরে বলেছেন, বাংলাদেশে গনতন্ত্র দেখতে চায় বাইডেন প্রশাসন। বাইডেন প্রশাসন গনতন্ত্র মানবাধিকার ধারক। তাই RAB নিষেধাজ্ঞা, ভিসা নীতি ইত্যাদি।

বাইডেন প্রশাসন গনতন্ত্র মানবাধিকার ধারকের উদাহর দু’একটা দেখুন —

ক) পাকিস্তানে গনতান্ত্রিক ভাবে নির্বাচিত সরকার ইমরানকে তাড়ায় সামরিক পৃষ্ঠপোষক সরকার আনা!

খ) শ্রীলঙ্কার সরকার চীন প্রীতির জন্য পরিবর্তন।

গ) তুরস্কে এরদোয়ান এর বিরুদ্ধে ক্যু ও ফেইল মাইরা নির্বাচনে প্রার্থী দেয়া।

ঘ) N A T O সন্মেলনে বেলজিয়ামের ব্রাসেলস এ বিমান বন্দরেই চীন কে দেখা নেয়ার হুমকি —

ঙ) সৌদি যুবরাজকে থ্রেট সৌদিআরব সফরে যেয়ে তার সাংবাদিক খাসোগি হত্যা মামলা আন্তর্জাতিক আদালতে তোলা হবে —

 

প্রিয় পাঠক সব গনতান্ত্রিক চর্চা বাংলাদেশের উপর কেন? অন্য দেশে বৈপরীত্যে লক্ষ্যনীয়! বাংলাদেশে একখান সামরিক ঘাটি করতে পারলে সারা বিশ্ব হাতে আসে, সারা বিশ্বের তেল-গ্যাস, খনিজ সমৃদ্ধ এশিয়া

মার্কিন ভুলে হাতছাড়া। সোনার হরিন মধ্য প্রাচ্য যারা মদ মহিলা বেতন সব দিছে গত ৭৫ বছর!

তাই বাংলাদেশ সুইটেবল এশিয়ায় ছড়ি ঘুরাতে।

ডঃ ইউনুস সাহেব, বাংলাদেশে প্রেরিত হয়েছেন না কি স্ব ইচ্ছায় এসেছেন জানি না। তাকে গনতান্ত্রিক ভাবে আদালত ফেজ করতে না বলে —

১. কেনেডির মেয়ে তার মুক্তি চায়।

২. কংগ্রেস ম্যানরা মুক্তি চায়।

৩. হিলারি ক্লিনটন মুক্তি চান!

অথচ বাইডেন প্রশাসন গনতন্ত্র মানবাধিকার পূজারি, আদালত ফেস করেই মুক্তি পাওয়া সম্ভব তা এ পূজারি মন্দির পূজারি নন, স্বার্থ পূজারী।

 

ভালো থাকেন সুস্থ থাকেন নিজ দেশকে ভালবাসেন।

মুখে মুখে ধর্ম, গনতন্ত্র, মানবতা নয়

বুকে ধারন করা মানুষ, রাস্ট্র, বাংলাদেশ চায়!

 

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:

সর্বাধিক পঠিত