শনিবার, মে ২৫, ২০২৪

এবার ঐতিহাসিক পাগলা মসজিদের দানবাক্সে পাওয়া গেছে ১৯ বস্তা টাকা,চলছে গণনা

আপডেট:

আশরাফুল ইসলাম তুষার,কিশোরগঞ্জ:
কিশোরগঞ্জের ঐতিহাসিক পাগলা মসজিদের দানবাক্স চার মাস পর খুলে এবার পাওয়া গেছে ১৯ বস্তা টাকা।
শনিবার সকাল ৮ টায় দানবাক্সগুলো খোলা হয়। দানবাক্স খুলে ১৯টি বস্তায় টাকাগুলো ভরে গণণার কাজে নেওয়া হয়েছে।

কিশোরগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) এটিএম ফরহাদ চৌধুরী বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

বিজ্ঞাপন

টাকা গণনা কাজ তদারকি করছেন কিশোরগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট (এডিএম) কাজী মহুয়া মমতাজ,সিনিয়র সহকারী কমিশনার শেখ জাবের আহমেদ, সিরাজুল ইসলাম, সহকারী কমিশনার মোছা. নাবিলা ফেরদৌস, সাদিয়া আফরীন তারিন, মসজিদের পেশ ইমাম মুফতি খলিলুর রহমান,পাগলা মসজিদের প্রশাসনিক কর্মকর্তা মো. শওকত উদ্দিন ভূঞা ও রূপালী ব্যাংকের সহকারী মহাব্যবস্থাপক (এজিএম) রফিকুল ইসলামসহ ব্যবস্থাপনা কমিটির সদস্য এবং মসজিদ কমপ্লেক্সে অবস্থিত মাদরাসা ও এতিমখানার শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা অংশ নিয়েছেন।
সাধারণত তিন মাস পর পর পাগলা মসজিদের দান সিন্দুক খোলা হয়। এবার চার মাস পর মসজিদের দান সিন্দুক খোলা হয়েছে। টাকা গণনা শেষে কতো টাকা পাওয়া গেলো তার হিসাব পাওয়া যাবে।
এরআগে, সর্বশেষ চলতি বছরের ৭ জানুয়ারি দান সিন্দুকগুলো খুলে গণনা করে ৪ কোটি ১৮ লাখ ১৬ হাজার ৭৪৪ টাকা পাওয়া যায়। এছাড়াও স্বর্ণ ও রূপাসহ বেশ কিছু বৈদেশিক মুদ্রাও পাওয়া যায়।

 

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:

সর্বাধিক পঠিত