সোমবার, এপ্রিল ১৫, ২০২৪

কুষ্টিয়ায় এনজিও কর্মীকে গণধর্ষণের অভিযোগে আটক ৩

আপডেট:

হৃদয় রায়হান ভেড়ামারা (কুষ্টিয়া) প্রতিনিধি

কুষ্টিয়া কুমারখালী নন্দুলালপুর ইউনিয়নের বুজরুখ বাঁখই গ্ৰামে এনজিও কর্মী (২৯)কে পাটখেতে ‘দলবেঁধে’ ধর্ষণের অভিযোগে তিন জন যুবক কে আটক করেছে পুলিশ।

বিজ্ঞাপন

১৯ জুলাই রাত ৯ টা ৪৫ মিনিটের দিকে এই ঘটনা ঘটে। আটককৃতরা হলেন- বুজরুখ বাঁখই গ্ৰামের কুদ্দুস শেখের ছেলে রবিউল ইসলাম রবিন (২১) আবু বক্কার এর ছেলে মাসফিকুল রহমান (১৯), দুর্গাপুর গ্ৰামের আব্দুল হান্নানের ছেলে রাসেল আহমেদ (২০) ।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, এনজিও কর্মী রাতে ভ্যান যোগে বজরুক বাঁখই গ্রামে কিস্তি তুলতে যাচ্ছিলেন। পথিমধ্যে কালু মোড়স্থ সেতুর এলাকায় অজ্ঞাত কিছু যুবক পথ অবরোধ করে ভ্যান চালককে ভয়ভীতি দেখিয়ে তাড়িয়ে দেয়। এর পর এনজিও কর্মীকে পাশের পাটখেতে নিয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ করে ফেলে রেখে পালিয়ে যায়। এই সময় এনজিও কর্মীর হাতে থাকা একটি মোবাইল ফোন কেড়ে নেয় তারা।

বিজ্ঞাপন

ভ্যানচালক ফারুক হোসেন বলেন, রাত ৮ টার পর আমার ভ্যানে করে এনজিও কর্মী কিস্তি তুলতে বুজরুখ বাঁখই গ্ৰামে, কালুর মোড়ে পৌঁছালে। ৩ /৪ জন যুবক ভ্যান থামিয়ে এনজিও কর্মী কে তারা নিয়ে যায়। এই সময় আমাকে ভয়ভীতি দেখিয়ে ওখান থেকে সরিয়ে দেয়। এর পর আমি আমার এক আত্মীয় কে ডেকে নিয়ে ঘটনা স্থানে গিয়ে এনজিও কর্মী কে উদ্ধার করে কুমারখালী থানায় নিয়ে আসি।

কুমারখালীর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ আকিবুল ইসলাম জানান, এনজিও কর্মী কিস্তির টাকা আনতে গিয়ে গণধর্ষণের শিকার হয় । ভিকটিমের অভিযোগের ভিত্তিতে ৎ থানায় মামলা হয়েছে। রাতেই তিনজনকে গ্রেফতার করে বৃহস্পতিবার দুপুরে আদালতে সোপার্দ করা হয়েছে। ঘটনার তদন্ত চলছে। তিনি আরো বলেন, আটককৃতরা প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ঘটনার সতত্যা স্বীকার করেছে। ভিকটিমের ব্যবহৃত মোবাইল ফোন টি আসামিদের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:

সর্বাধিক পঠিত