সোমবার, মে ২০, ২০২৪

জার্মানে আমেরিকা বিরোধী বিক্ষোভ

আপডেট:

জার্মানে আমেরিকা বিরোধী বিক্ষোভ!

লেখক ঃ ইঞ্জিঃ মোঃ সিরাজুল ইসলাম।

বিজ্ঞাপন

তাং ঃ ২৮.০৬.২০২৩

 

বিজ্ঞাপন

জার্মানে জনগন রোডে নেমে এসে বিক্ষোভ করেছেন

আমেরিকার বিরুদ্ধে! তারা বলছেন বিশ্ব অশান্তির মূল হচ্ছে আমেরিকা ও N A T O যা আমেরিকার কথায় পরিচালিত হয়। ইউক্রেন যুদ্ধ দীর্ঘায়িত করা মার্কিন পরিকল্পনা যার উদ্দেশ্য রাশিয়ার শক্তি ক্ষয় করে বিশ্বযুদ্ধে তাকে পরাজিত করা, এমনটা ফাঁস হওয়া মার্কিন নথিতে জানা গেছে। বিশ্বে বিগত একশত বছরে যে বাইশটা যুদ্ধ হয়েছে তার মূলে আমেরিকার আধিপত্য বিস্তার ও অস্ত্র বিক্রি করে মুনফা করা! জার্মান রা তাদের দেশের মার্কিন সেনা ঘাটি তুলে নিতে বিভিন্ন শ্লোগান ও সাক্ষাৎকার দেন। একথা শতভাগ সত্যি যে ইউক্রেন যুদ্ধ দীর্ঘায়িত করায় সারা বিশ্বে দুর্ভিক্ষ, পাকিস্তান শ্রীলঙ্কা দেউলিয়া, পাকিস্তানে এক কেজি আটার মূল্য ৬৪৩ টাকা! এছাড়া বিশ্বে একশত দেশ দেউলিয়ার খাদে এবং খোদ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনৈতিক অবস্হা তলানিতে, নিজেই খাদে বিধায় রিপাবলিকানদের অনুরোধ করে সংখ্যা গরিষ্ঠতা বাড়ায়ে লোন নিয়েছেন বাইডেন প্রশাসন যার একদিনের সরকারি খরচ প্রায় ১. ৭ হাজার কোটি ডলার। ঋণ পাহাড় সমান। অল্পের জন্য শ্রীলঙ্কা হতে হয় নাই বিরোধী রিপাবলিকান সহায়তা করায়! ইউরোপীয় ২৭ দেশের অর্থনৈতিক অবস্হা সঙীন, মিল কলকারখানা বন্ধ তেল-গ্যাস অভাবে।

 

প্রিয় পাঠক, আমেরিকার বিশ্বে মোট সামরিক ঘাটি আটশত। এশিয়ায় নড়বড়ে অবস্হা শুধু, কারন পচাত্তর বছর পর মধ্যপ্রাচ্যের সবচেয়ে বড় মাথামোটা সৌদিআরব বুঝতে পারছে আমেরিকা কে মদ মহিলা অর্থ দিয়ে পুষে এবং আমেরিকার মোট অস্ত্র বিক্রির ৩৭% কিনেও আমেরিকা তার না! তাই ঘুরে দাড়িয়েছে চীন রাশিয়া ব্লকে! উল্লেখ্য, এজন্যই বাংলাদেশে মার্কিন প্রচেষ্টা একটা ঘাটি করা যার জন্য মানবাধিকার গনতন্ত্র ইত্যাদি ধোঁয়া তুলে নিষেধাজ্ঞা, ভিসা নীতি!

 

এক জার্মানীতে মার্কিন ১৭২ টা ঘাটি

ইতালিতে ১১৩ টা, জাপানে ৮৪ টা, দঃ কোরিয়া ৮৪ টা

এছাড়াও অস্ট্রেলিয়া, বুলগেরিয়া, কলম্বিয়া, ইত্যাদি ৮০ টা দেশে ৮০০ ঘাটি তারপর ও বাইডেন স্যারের রাতে ঘুম হয় না “রাশিয়ার” ভয়ে!

রাশিয়া চীন ভারত ইরান তুরস্ক বেলরুশ কিউবা, ভেনিজুয়েলা উঃ কোরিয়া, সৌদি, সিরিয়া, আমীরাত যথেষ্ট আমি ক্ষুদ্র দেশের ক্ষুদ্র লেখক মনে করি। রাশিয়া চীন ইরানের আছে অপ্রতিরোধ্য পরামানিক মিশাইল, তুরস্ক ইরানের আছে অপ্রতিরোধ্য ড্রোন, ভারত তুরস্ক চীন রাশিয়া সিরিয়ার আছে সারফেস টু সারফেস আকাশ প্রতিরক্ষা রাশিয়ান S 400.

 

ভালো থাকেন সুস্থ থাকেন নিজ দেশকে ভালবাসেন।

ইউক্রেন যুদ্ধে প্রমান করেছে পশ্চিমা রা ৮০% এশিয়া নির্ভরশীল আমি আপনাদের পর্ব ওয়াইজ লিখে দেখিয়েছি যদি ভুলে না যেয়ে থাকেন। কি কি এশিয়া থেকে তারা আমদানি করে এমনকি Trouts fish too from Russia. একটু মন খুলে হাসুন হে এশিয়াবাসী!

জার্মান বিক্ষোভ (মার্কিন ঘাটি তুলে নাও)।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:

সর্বাধিক পঠিত