শনিবার, মে ২৫, ২০২৪

মনোহরদীতে অনাদরে অবহেলায় আছে এক প্রতিরোধ যোদ্ধা

আপডেট:

 

সাইফুর নিশাদ
মনোহরদী (নরসিংদী) প্রতিনিধি

বিজ্ঞাপন

একাত্তরে পলায়মান পাকসেনাদের ধাওয়া করে আটকাতে গিয়ে তাদের গুলিতে নিহত ছফুরুদ্দীনের কবর নিতান্ত অনাদরে অবহলায় পড়ে আছে।না জানে কেউ তার পরিচয়,না রাখে কেউ তার খবর।

জানা যায়,একাত্তরের ২০ সেপ্টেম্বর মুক্তিযোদ্ধাদের হাতে পাকবাহিনীর মনোহরদী ক্যাম্পের পতন ঘটে।এ সময় পাকবাহিনীর ৫ জনের একটি সশস্ত্র পলায়মান দল ২১ সেপ্টেম্বর ভোরে মনোহরদীর বারুদীয়া ভূইয়া বাজারের পথ ধরে শিবপুরের দিকে ছুটতে থাকে।টের পেয়ে জনতা দা লাঠিসোটা নিয়ে তাদের আটক করতে পিছু ধাওয়া করে ছুটে যায়।

বিজ্ঞাপন

জনতার প্রতিরোধ দলে ছিলেন সে সময়কার এক কিশোর মনোহরদীর হরিষপুর গ্রামের মৃত শাহাব উদ্দীনের পুত্র ছফুরুদ্দীন।

তিনি ধাওয়া করে করে তাদের খুব কাছাকাছি পৌঁছে যান।সে সময় পাকবাহিনী তাদের হাতের আগ্নেয়াস্ত্রের গুলি ছোঁড়ে।এতে তার মাথার খুলি উড়ে যায় এবং ঘটনাস্থলেই ছফুরুদ্দীনের মৃত্যু ঘটে। তাকে তার বাড়ী সংলগ্ন বারুদীয়া ভূইয়ার বাজারের দক্ষিনে পাকা রাস্তার ধারে পারিবারিক গোরস্থানে কবরস্থ করা হয়।

ছফুরুদ্দীনের বড়োভাই সিরাজ উদ্দীন জানান,বঙ্গতাজ তাজ উদ্দীন আহমেদ স্বাধীনতার পর তার কবর জেয়ারত করতে এসেছিলেন।প্রতিরোধ যোদ্ধা ছফুরুদ্দীনের কবরটি নিতান্ত অনাদর ও অবহেলায় সম্পূর্ণ অপরিচিতের মতো পড়ে আছে সেখানে। তার পরিবার কবরটির সংস্কার ও উন্নয়ন দাবী করেছেন।এ ব্যাপারে মনোহরদী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মীর রেজাউল করীম জানান,বিষয়টির তার জানা নেই।নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে আবেদন পেলে খোঁজ নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া যেতে পারে।

 

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:

সর্বাধিক পঠিত