শনিবার, মে ২৫, ২০২৪

মোংলায় সবুজ অভিভাবক সংবর্ধনা ও বৃক্ষরোপন কর্মসুচির উদ্বোধন

আপডেট:

স্থানীয় পর্যায়ে প্রকৃতি ও পরিবেশ সুরক্ষায় নিঃস্বার্থ ভাবে কাজ করে যাওয়া বৃক্ষপ্রেমীদের “সবুজ অভিভাবক” সংবর্ধনা দেয়া হয়েছে মোংলায়। একই সাথে উপকূলজুড়ে সবুজ বেষ্টনী গড়ে তোলার প্রত্যয়ে মাসব্যাপী বৃক্ষরোপন কর্মসুচিরও উদ্বোধন করা হয়। সোমবার (২২ মে) বিকেল ৪টায় ওয়াটারকিপার্স বাংলাদেশ’র আয়োজনে গোয়ালিরমেঠ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠে এসব কর্মসূচি পালন করা হয়।

বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা) এর মোংলার আহ্বায়ক পশুর রিভার ওয়াটারকিপার মোঃ নূর আলম শেখ’র সভাপতিত্বে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা নির্বাহি অফিসার দীপংকর দাশ। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সহকারি কমিশনার (ভূমি) মোঃ হাবিবুর রহমান, মিঠাখালী ইউপি চেয়ারম্যান উৎপল মন্ডল, উপজেলা শিল্পকলা একাডেমীর সাধারণ সম্পাদক প্রভাষক এস এম মাহবুবুর রহমান, ওয়াটারকিপার্স বাংলাদেশ’র গবেষণা ব্যবস্থাপক মোঃ ইকবাল ফারুক ও কমিউনিকেশন অফিসার দেওয়ান নূরতাজ আলম।

বিজ্ঞাপন

”সবুজ অভিভাবক” সংবর্ধিত সম্মানিত অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন সুন্দরবন জাদুঘরের পরিচালক সুভাষ চন্দ্র বিশ্বাস, বৃক্ষপ্রেমী আলহাজ্ব আঃ ছাত্তার গাজী ও মসুর ছাদ বাগানের স্বত্তাধিকারী মুর্শিদা সুমী। “সবুজ অভিভাবক” সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের বক্তব্য রাখেন সমাজকর্মী গাজী ইলিয়াছ হোসেন, বাপা নেতা গীতিকার মোল্লা আল মামুন, বাপানেত্রী কমলা সরকার, পশুর রিভার ওয়াটারকিপার ভলান্টিয়ার আব্দুর রশিদ হাওলাদার, জেলে সমিতির সভাপতি বিদ্যুৎ মন্ডল, টাইগার স্পোর্টিং ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক পরিবেশকর্মী শেখ রাসেল, নদীকর্মী হাছিব সরদার, নারীজেলে চন্দ্রিকা মন্ডল প্রমূখ।

আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন প্রকৃতি-পরিবেশকে ধ্বংস করার ফলে প্রাকৃতিক দুর্যোগ বেড়ে গেছে। পরিবেশকে চিন্তার কেন্দ্র বিন্দুতে রেখেই পরিবেশবান্ধব উন্নয়ন পরিকল্পনা প্রনয়ন করতে হবে। প্রকৃতি-পরিবেশ এবং আমাদের ভবিষ্যতকে ধ্বংস করে কোন উন্নয়ন টেকসই হতে পারেনা। সংবর্ধিত “সবুজ অভিভাবক” সুভাষ চন্দ্র বিশ্বাস সুন্দরবনের নানা প্রকারের গাছ-পালা ও জীবজন্তু সংরক্ষণ করেন সুন্দরবনের জাদুঘরে, বৃক্ষপ্রেমী আলহাজ্ব আঃ ছাত্তার গাজী মিঠাখালী ইউনিয়নের বিভিন্ন স্থানে শতাধিক বটগাছের চারা রোপণ করেছেন যা এখন বিশালাকৃতির ধারণ করে সুশীতল প্রশান্তির ছায়া বিলিয়ে যাচ্ছে। সংবর্ধিত আরেক ”সবুজ অভিভাবক” মুর্শিদা সুমী নিজের বাড়ীর ছাদ-সিড়িতে শৈল্পিকরুপে ৫ হাজার দেশী-বিদেশী নানা প্রজাতির গাছ লাগিয়েছেন। এছাড়া তিনি ফেসবুক পেইজের মাধ্যমে নতুন বাগানীদের গাছ বিতরণ করে থাকেন।

বিজ্ঞাপন

অন্যদিকে সকালে মোংলার গোয়ালিরমেঠ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ওয়াটারকিপার্স বাংলাদেশ’র আয়োজনে অর্ধশতাধিক জেলেদের অংশগ্রহণে ”উপকূলের ইলিশ ও জেলে” বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:

সর্বাধিক পঠিত