সোমবার, এপ্রিল ১৫, ২০২৪

রাণীশংকৈল রাউতনগর স্কুল এন্ড কলেজ কমিটির বিরুদ্ধে ঘুষ বানিজ্যের অভিযোগ-

আপডেট:

রাণীশংকৈল (ঠাকুরগাঁও) প্রতিনিধি
ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈল উপজেলার
রাউতনগর স্কুল এন্ড কলেজে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক, সভাপতি ও গর্ভনিং বডির সদস্যদের
বিরুদ্ধে ৪র্থ শ্রেণির ২টি ( আয়া ও অফিস সহায়ক) পদে ২৪ জন পার্থীর কাছে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিয়ে ২ জনকে গোপনে নিয়োগ দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে।দুটি পদে ২৪ জন প্রার্থীর মধ্যে গোপনে দুজকে নিয়োগ দেওয়ায় বাকী প্রার্থীদের মধ্যে এলাকায় ব্যাপক উত্তেজনা বিরাজ করছে।
বৃহস্পতিবার(৩ আগষ্ট)মামলা ও অভিযোগ সুত্রে জানা গেছে, রাণীশংকৈল রাউতনগর স্কুল এন্ড কলেজে গত ২৩জানুয়ারী ভোরের ডাক ও স্থানীয় পত্রালাপ পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে। প্রেক্ষিতে গত ৬ ফেব্রুয়ারীর মধ্যে আয়া পদে ৭ জন এবং অফিস সহায়ক পদে ১৭ জন প্রার্থী চাকুরীর জন্য আবেদন জমা করে।ওই শিক্ষা প্রতিষ্টানে কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্ত মোতাবেক গত ২৪ জুন ওই ২ পদে নিয়োগ পরীক্ষা নেওয়ার তারিখ ঘোষনা করেন। কিন্তু স্থানীয়দের তোপের মুখে  স্থাগিত
হয়ে যায়। পুনরায় ১৫ জুলাই পরীক্ষা নেওয়ার তারিখ নির্ধারণ করে ২৪ জন
পরীক্ষার্থীকে এডমিট কার্ড প্রদান করা হয়। কিন্তু মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার ও ডিজি
প্রতিনিধি অনুপস্থিতি থাকায় এদিন এ নিয়োগ কার্যক্রম বাতিল করেন স্কুল কর্তৃপক্ষ।
এই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে সভাপতি’র নেতৃত্বে ২১ জুলাই দুই পদে পক্সিসহ ৬ জন
প্রার্থীকে নিয়ে গোপনে পার্শ্ববর্তী উপজেলা বালিয়াডাঙ্গীতে গিয়ে নিজেদের লোক ২
জনকে দুটি পদে নিয়োগের সকল কার্যক্রম সম্পন্ন করেন। স্কুল কতৃপক্ষ নিয়োগের বিষয়টি ধামা চাপা দিয়ে রাখলেও নিয়োগের তথ্যটি ফাঁস হয়ে যাওয়ায় অন্যন্য চাকুরী প্রার্থীদের মধ্যে চরম ক্ষোভ ও হতাশা বিরাজ করছে। এনিয়ে গত ২৩ জুলাই
প্রার্থী লিটন ও ২৪ জুলাই শামিম ফেরদৌশ ইউএনও বরাবরে অভিযোগ করেন। গত ২৬
জানুয়ারী ইউএনও প্রধান শিক্ষক, মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার, ডিজি প্রতিনিধি ও সকল
ম্যানেজিং কমিটির সদস্যদের তার কার্যালয়ে ডেকে সব কিছু শুনে প্রধান শিক্ষককে
মামলা নিষ্পত্তি করে পুনরায় পত্রিকায় বিঞ্জপ্তি দিয়ে নতুন ভাবে নিয়োগ কার্যক্রম
সম্পন্ন করার নির্দেশ দেন।
এ ব্যাপারে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক নাজির উদ্দীন বলেন- বালিয়াডাঙ্গীতে নিয়োগ পরীক্ষার বিষয়টি আমি জানিনা।  ইউএনও স্যারের নির্দেশ মোতাবেক নিয়োগ স্থগিত করা হয়েছে। পরবর্তীতে বিধি মোতাবেক নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হবে।
এ প্রসঙ্গে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি আতাউর রহমানের মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে
তাকে পাওয়া যায়নি।
সরকারি বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক (ভারপ্রাপ্ত) ও ডিজি প্রতনিধি রুহুল আমিন বলেন-নিয়োগের বিষয়টি আমি অবগত ছিলাম না। ইউএনও স্যারনিয়োগ প্রক্রিয়াটি স্থগিত করেছে। মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার বেলাল উদ্দীন (ভারপ্রাপ্ত) বলেন- ইউএনও স্যারের নির্দেশ মোতাবেক নিয়োগ স্থগিত করা হয়েছে।
ইউএনও সোহেল সুলতান জুলকার নাইন কবির স্টিভ বলেন, অভিযোগের ভিক্তিতে রাউতনগর
স্কুলের নিয়োগ প্রক্রিয়ার বিষয়টি স্থগিত করা হয়েছে। আদালতে মামলার বিষয়টি
নিস্পত্তি হলে পরবর্তীতে বিধি মোতাবেক প্রধান শিক্ষককে নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন
করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:

সর্বাধিক পঠিত